ফেব্রুয়ারি ২৯, ২০২৪ ৫:০০ পূর্বাহ্ণ || ইউএসবাংলানিউজ২৪.কম

আফগানিস্তান থেকে সেনা প্রত্যাহার ভুল সিদ্ধান্ত : জর্জ ডব্লিউ বুশ

১ min read

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশ তালেবানের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের কথা উল্লেখ করে আফগানিস্তান থেকে ন্যাটোর সেনা প্রত্যাহারের সমালোচনা করেছেন। বুশ জার্মান সংবাদ মাধ্যম ডয়েচে ভেলেকে বলেন, এ সিদ্ধান্তের ফলে আফগান নারী ও শিশুরা অবর্ণনীয় ক্ষতির শিকার হতে যাচ্ছে। সেনা প্রত্যাহারকে একটি ভুল সিদ্ধান্ত আখ্যা দিয়ে তিনি বলেন, নিষ্ঠুর তালেবানরা সাধারণ মানুষকে হত্যা করবে।

৯/১১ এর হামলার পর সাবেক এই রিপাবলিকান প্রেসিডেন্ট ২০০১ সালে আফগানিস্তানে সেনা পাঠিয়েছিলেন। তিনি বলেন, জার্মান চ্যান্সেলরও এ বিষয়ে আমার সঙ্গে একমত হবেন। অ্যাঙ্গেলা মের্কেলের প্রশংসা করে বুশ বলেন, দীর্ঘ ১৬ বছর ক্ষমতায় থাকার পর বিদায় নেবেন তিনি। এই সময়ে মের্কেল শ্রেণি ও মর্যাদাকে একটি গুরুত্বপূর্ণ পর্যায়ে নিয়ে এসছেন এবং অনেক কঠিন সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করেছেন।

রোববার জাতিসংঘ জানিয়েছে, সংঘাত বৃদ্ধি পাওয়ায় দেশটিতে দুর্ভোগ বেড়েছে। তাই দেশটিতে আর্থিক সাহায্যের জন্য আহ্বান জানানো হয়েছে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন, ‘আফগানিস্তানের যুদ্ধ থেকে সরে আসার এখনই প্রকৃত সময়। আফগানারা নিজেদের ভবিষৎ নিজেরাই ঠিক করবে।’

উল্লেখ্য, যুক্তরাষ্ট্র ও ন্যাটোর সদস্যরা ২০ বছরের যুদ্ধের পর অবশেষে আফগানিস্তান ত্যাগ করছে। যে তালেবানকে পরাজিত করতে তারা দেশটিতে এসেছিল সেই তালেবানই এখন দ্রুতগতিতে দেশটির বিভিন্ন এলাকা দখল করে নিচ্ছে। এই যুদ্ধ নানাভাবে আফগানিস্তানকে বদলে দিয়েছে। ভবিষ্যতে কী ঘটতে যাচ্ছে তাই এখন দেখার অপেক্ষা।

২০০১ সালে মার্কিন-নেতৃত্বাধীন বাহিনীর হাতে ক্ষমতাচ্যুত হয় তালেবান। এরপর দেশটিতে গণতান্ত্রিক প্রেসিডেন্ট নির্বাচন হয় এবং একটি নতুন সংবিধান গৃহীত হয়। কিন্তু তালেবান এরপর এক দীর্ঘ বিদ্রোহী তৎপরতা শুরু করে। ক্রমান্বয়ে তারা আবার শক্তি সঞ্চয় করে এবং যুক্তরাষ্ট্র ও ন্যাটো বাহিনীকে আরও বেশি করে সংঘাতে জড়িয়ে ফেলে। কিন্তু এখন মার্কিন বাহিনী আফগানিস্তান থেকে তাদের সবশেষ সৈন্যদের প্রত্যাহার করে নিচ্ছে।

Comments

comments

More Stories

১ min read
১ min read
১ min read

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!