জুন ১৪, ২০২৪ ১০:৪২ অপরাহ্ণ || ইউএসবাংলানিউজ২৪.কম

ডিসেম্বরে শেষ হচ্ছে ইউক্রেনকে সহযোগিতার অর্থ

১ min read

ইউক্রেনের জন্য সহায়তা তহবিলের ওপর আনা বিলের অর্থ ডিসেম্বরের পর শেষ হয়ে যাবে বলে জানিয়েছেন মার্কিন ন্যাশনাল সিকিউরিটি কাউন্সিলের মুখপাত্র জন কিরবি। সোমবার তিনি সাংবাদিকদের বলেন, বাইডেন প্রশাসন এই মাসে ইউক্রেনে আরও একটি সামরিক সহায়তার প্যাকেজ ঘোষণা করার পরিকল্পনা করছে। কিন্তু মাস শেষ হয়ে গেলে এর কোনওটাই আর কাজে আসবে না। মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন এ খবর জানিয়েছে।

ন্যাশনাল সিকিউরিটি কাউন্সিলের মুখপাত্র জন কিরবি বলেন, মাস শেষে আমাদের আর কিছু করার থাকবে না। ইউক্রেনকে সহায়তা করার মতো অর্থ আর থাকবে না। এজন্য বিলম্ব না করে এখনই  কংগ্রেসকে সিদ্ধান্তে আসা প্রয়োজন।

পেন্টাগনের মুখপাত্র লেফটেন্যান্ট কর্নেল গ্যারন গার্নের মতে, সরাসরি ইউক্রেনকে অস্ত্র সরবরাহ করার জন্য পেন্টাগনের কাছে এখনও ৪.৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার রয়েছে। তবে মাস শেষে তা প্রায় শেষ হয়ে যাবে।

রবিবার, পেন্টাগন কম্পট্রোলার মাইক ম্যাককর্ড ক্যাপিটাল হিল আটকে পড়া ১১১ বিলিয়ন মার্কিন ডলার সহায়তার বিষয়ে একটি চিঠিতে মার্কিন কংগ্রেসকে তাগাদা দিয়েছে। ব্লুমবার্গে প্রকাশিত সেই চিঠিতে ম্যাককর্ড লেখেন, ইউক্রেনকে সহায়তা করা প্রয়োজন আমাদের জাতীয় স্বার্থে। তারা যেন স্বাধীনতার জন্য লড়াই চালিয়ে যেতে পারে সেজন্য আমাদের সহায়তা করা প্রয়োজন।

প্রস্তাবিত অর্থের মধ্যে বাইডেন ৬১ বিলিয়ন ডলার চেয়েছিলেন ইউক্রেনকে সহায়তার জন্য। ইউক্রেনকে অর্থ দেওয়ার বিষয়ে জো বাইডেনের আরও যুক্তি ছিল, যদি যুক্তরাষ্ট্র দেশটির পাশে না দাঁড়ায়, তাহলে মস্কোর কাছে নতজানু হয়ে পড়বে কিয়েভ, যা ওয়াশিংটনের জন্য হুমকির কারণ হয়ে দাঁড়াবে।

ইউক্রেনের পাশাপাশি ইসরায়েলকে ১৪ বিলিয়ন মার্কিন ডলার ও তাইওয়ানকে সহায়তা তহবিল দেওয়ার কথা ছিল বাইডেন প্রশাসনের।

এদিকে আইনপ্রণেতারা ইউক্রেনের অর্থায়নের সাথে সীমান্ত নিরাপত্তা নিয়ে আপাতত কোনও আলোচনায় বসছেন না। সিনেটের সংখ্যাগরিষ্ঠ নেতা চাক শুমার এই চুক্তিতে নিয়ে কথা বলার পরিবর্তে সিনেটরদের এই সপ্তাহে ফিরে আসতে বলেছেন।

রিপাবলিকান সিনেটর লিন্ডসে গ্রাহাম রবিবার বলেছেন, কয়েক সপ্তাহের আলোচনার পর, সিনেটররা বছরের শেষের আগে একটি চুক্তি করার জন্য ভাবছেন না।

গত ৬ ডিসেম্বর বিলের বিপক্ষে ভোট দিয়েছেন ৪৯ জন রিপাবলিকান সিনেটর। ১০০ আসনের সিনেটে এই বিলটি পাসের জন্য প্রয়োজন ছিল ৬০টি ভোট। এর বাইরে বার্নি স্যান্ডার্স (ডেমোক্র্যাট সদস্য) ইসরায়েলকে সহায়তার তহবিলের বিপক্ষে ভোট দিয়েছেন।

এদিকে কিরবি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র এখন বাকি অর্থ বরাদ্দ করেছে নতুন অস্ত্র কেনার জন্য অর্থাৎ যা পেন্টাগন ইতিমধ্যে ইউক্রেনে পাঠিয়েছে তা প্রতিস্থাপন করার জন্য।

Comments

comments

More Stories

১ min read
১ min read

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!