ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২৪ ৪:৩৫ পূর্বাহ্ণ || ইউএসবাংলানিউজ২৪.কম

চার অর্থনৈতিক অঞ্চলে জমি ইজারা পেল ছয় প্রতিষ্ঠান

১ min read

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্পনগর, মীরসরাই, কক্সবাজারের মহেশখালী ও জামালপুর অর্থনৈতিক অঞ্চলে দুটি রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠানসহ ছয় বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠানকে জমি বরাদ্দ দিয়েছে বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষ (বেজা)।

এগুলোর মধ্যে রয়েছে রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন গ্যাস ট্রান্সমিশন কোম্পানি লিমিটেড (জিটিসিএল) ও রূপান্তরিত প্রাকৃতিক গ্যাস কোম্পানি লিমিটেড (আরপিজিসিএল)। এছাড়া বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে রয়েছে মাফ সু’জ লিমিটেড, সায়মন বিচ রিসোর্ট লিমিটেড, ইউনিটেক্স স্পিনিং লিমিটেড এবং স্টেপ মিডিয়া লিমিটেড।

সোমবার (২১ জুন) রাজধানীতে বেজা সদর দফতরের সভাকক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে জমি ইজারা সংক্রান্ত চুক্তি সই হয়। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বেজার নির্বাহী চেয়ারম্যান (সচিব) পবন চৌধুরী।

চুক্তি অনুযায়ী কক্সবাজারের মহেশখালী অর্থনৈতিক অঞ্চলে (ধলঘাটা) জিটিসিএল ১৩ দশমিক ৮৭ একর জমিতে গ্যাস ট্রান্সমিশন পাইপলাইন নির্মাণ করবে। একইসঙ্গে আরপিজিসিএল চার দশমিক ৪০ একর জমিতে দুটি এফএসআরইউ সাব-সি পাইপলাইন ও প্লাটফর্ম ইন-টাই ইন পয়েন্ট নির্মাণ করবে।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্পনগরে মাফ সু’জ লিমিটেড ৩০ একর জমি লিজ পেয়েছে। প্রতিষ্ঠানটি ৭১ দশমিক ৭১ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগ করে শতভাগ রফতানিমুখী কম্পোজিট সু, নিট ফেব্রিক, ওভেন ও নন ওভেন ক্যাপ উৎপাদন করবে। এতে প্রায় পাঁচ হাজার ৫০০ লোকের কর্মসংস্থান হবে।

সায়মন বিচ রিসোর্ট লিমিটেড বঙ্গবন্ধু শিল্প নগরে ছয় একর জমিতে ২৯ দশমিক ৭৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগ করে হোটেল ও রিসোর্ট নির্মাণ করবে। এখানে কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে প্রায় ৪৫০ জন লোকের।

ইউনিটেক্স স্পিনিং লিমিটেড মীরসরাইতে ২০ একর জমি ইজারা পেয়েছে। ৭৬ দশমিক ৭৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগ করে তারা সিনথেটিক ফাইবার ও পেইন্ট ইন্ডাস্ট্রি নির্মাণ করবে। এতে কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে এক হাজার ৫৫ জনের।

অন্যদিকে, স্টেপ মিডিয়া লিমিটেড জামালপুর অর্থনৈতিক অঞ্চলে বিনিয়োগ করবে নয় দশমিক ৬৩ মিলিয়ন মার্কিন ডলার। প্রতিষ্ঠানটি জমি ইজারা পেয়েছে ছয় একর। এখানে এটি নির্মাণ করবে পিভিসি ফ্লেক্স ব্যানার উৎপাদনকারী ইন্ডাস্ট্রি। এতে শতাধিক মানুষের কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে।

জমি ইজারা চুক্তি সই অনুষ্ঠানে পবন চৌধুরী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রত্যক্ষ তত্ত্বাবধানে সারাদেশে ১০০টি অর্থনৈতিক অঞ্চল স্থাপনের জন্য বেজা কাজ করছে। এসব অর্থনৈতিক অঞ্চলে বিনিয়োগবান্ধব পরিবেশ তৈরিতে বেজা বদ্ধপরিকর। পর্যায়ক্রমে সব অর্থনৈতিক অঞ্চলে গ্যাস, পানি, বিদ্যুতের সরবরাহ নিশ্চিত করা হবে। এক্ষেত্রে এগিয়ে আসার জন্য জিটিসিএল ও আরপিজিসিএলকে ধন্যবাদ।

দেশের সার্বিক উন্নয়নে বেসরকারি বিনিয়োগের গুরুত্ব তুলে ধরে পবন চৌধুরী বলেন, করোনাকালেও বেজা ছয় বিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগ প্রস্তাব পেয়েছে। জমি ইজারা চুক্তি স্বাক্ষরকারী চার বেসরকারি প্রতিষ্ঠান অতি দ্রুত শিল্প-কারখানা নির্মাণ শুরু করবে এবং উৎপাদনে যাবে বলেও আশা প্রকাশ করেন তিনি।

বেজার পক্ষে জমি ইজারা চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন সংস্থাটির নির্বাহী সদস্য মো. আলী আহসান। এছাড়া জিটিসিএলের পক্ষে কোম্পানি সচিব (মহাব্যবস্থাপক) কাজী হাসান মাসুদ, আরপিজিসিএলের পক্ষে কোম্পানি সচিব ফরিদ আহমেদ, মাফ সু’জ লিমিটেডের পক্ষে ব্যবস্থাপনা পরিচালক হাসনাত মোহাম্মদ আবু উবাইদা, সায়মন বিচ রিসোর্ট লিমিটেডের পক্ষে ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাহবুব-উর-রহমান, ইউনিটেক্স স্পিনিং লিমিটেডের পক্ষে ডিরেক্টর অপারেশন জোবায়েদুল ইসলাম চৌধুরী এবং স্টেপ মিডিয়া লিমিটেডের পক্ষে ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোস্তফা তৌহিদ খান চুক্তিতে সই করেন। অনুষ্ঠানে বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান চারটির প্রতিনিধিদল, বেজা, জিটিসিএল, আরপিজিসিএলের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Comments

comments

More Stories

১ min read
১ min read
১ min read

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!