ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২৪ ৮:২০ পূর্বাহ্ণ || ইউএসবাংলানিউজ২৪.কম
১ min read

বিয়ে করলেন (২ সেপ্টেম্বর) জনপ্রিয় অভিনেতা জিয়াউল ফারুক অপূর্ব। এটি তার তৃতীয় বিয়ে। পাত্রী শাম্মা দেওয়ান। তিনি যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী। গ্রামের বাড়ি নড়াইল হলেও শাম্মার জন্ম ও বেড়ে ওঠা আমেরিকায়ই।

বিয়ে নিয়ে অপূর্বর সাবেক স্ত্রী নাজিয়া হাসান অদিতির এক স্ট্যাটাসের মাধ্যমে সামনে চলে এলো অপূর্বর পরকীয়ার বিষয়টি, যা নতুন করে এ অভিনেতাকে সমালোচনায় ফেলে দিলো।

অদিতি তার সাবেক স্বামীকে ফেসবুকে শুভেচ্ছা জানিয়ে লিখেছেন, ‘চার বছরের প্রেম সফল হলো মাশাআল্লাহ.., নতুন বিয়ের জন্য শুভ কামনা।’

যদিও স্ট্যাটাসে সেখানে কোনো নাম উল্লেখ করেননি অদিতি; তবুও সবাই ধরে নিচ্ছেন তিনি অপূর্বকেই নতুন জীবনের জন্য শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। সেই শুভেচ্ছাবার্তার হিসাব-নিকেশে উঠে এলো হবু স্ত্রী শাম্মার সঙ্গে চার বছর ধরে প্রেম করছেন অপূর্ব।

নাজিয়ার এ কথায় স্পষ্ট হয়ে গেলো তাদের সংসার ভাঙার কারণ। অপূর্ব যেহেতু চার বছর ধরে প্রেম করেছেন সেহেতু তিনি অদিতির সঙ্গে সংসার করার সময় থেকেই পরকীয়ায় যুক্ত ছিলেন। তাদের ডিভোর্স হয় ২০২০ সালের মে মাসে। তারপরের এক বছর বাদ দিলে অপূর্ব তিন বছর পরকীয়া করেছেন।

অদিতির সঙ্গে সংসার করাকালীনই শাম্মার সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন অপূর্ব। তা মেনে নিতে পারেননি বলেই অপূর্বকে ডিভোর্স দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন অদিতি।

Oditi-02.jpg

গত বছরের ২১ মে এক স্ট্যাটাসে প্রথম তিনি জানান যে অপূর্বর সঙ্গে সংসার করছেন না। কেউ যেন তাকে অপূর্বর স্ত্রী হিসেবে ভাবি বলে না ডাকে। তাদের বিচ্ছেদ হয়ে গেছে।

ফেসবুকে নাজিয়ার স্ট্যাটাসটিতে ১০ হাজার লাইক-রিঅ্যাক্ট পড়েছে। মন্তব্যের ঘরে হাজারের উপরে মতামত। তার বেশিরভাগই অপূর্বকে সমালোচনা করে। মিশুক মনি নামে একজন লিখেছেন, ‘এক ডিশ দুই কুক দেখেই বুঝেছিলাম আপনি কত মানসিক ভাবে অশান্তিতে থাকতেন, আর চিন্তায় থাকতেন তাকে নিয়ে, আল্লাহ আপনার ভালো চান বলেই উনার লাইফ থেকে আপনাকে সরিয়ে দিয়েছে। ইউ ডিজার্ভ বেটার। আল্লাহ আপনাকে ভাল রাখুক’।

জান্নাতুল ফেরদৌস নামে এক ফেসবুক ব্যবহারকারী মন্তব্য করেছেন, ‘I’m glad যে আপনি এটা পোস্ট করেছেন। কারণ সবসময় সম্মানের খাতিরে ও পরিবারের খাতিরে মেয়েরা চুপ থাকে। ফলে সমাজ সংসার ভাঙার দোষ মেয়েকেই দেয়। সাথে গালি ফ্রি।
ছেলেদের জন্যও যে সংসার ভাঙে তা মানুষ মানতে চায় না। ভালো হয়েছে এমন লুচু থেকে বেচে গেলেন। সামনে আগান। নতুন করে জীবন সাজান। আল্লাহ আপনার সাথে আছেন আপু।’

এমনি আরও প্রায় দেড় হাজার মন্তব্য করা হয়েছে স্ট্যাটাসটিতে। তবে অদিতি কারও মন্তব্যেই রিপ্লাই দেননি। শুধু তাই নয়, দুপুরে দেয়া স্ট্যাটাসটি সন্ধ্যা ৬টার পর ফেসবুক থেকে সরিয়েও নেন তিনি।

এর আগে ২০১০ সালের ১৯ আগস্ট পালিয়ে গিয়ে অভিনেত্রী সাদিয়া জাহান প্রভাকে বিয়ে করেছিলেন অপূর্ব। ২০১০ সালের সেই বিয়ে ২০১১ সালে ভেঙে যায়। এরপর ওই বছরই নাজিয়া হাসান অদিতিকে বিয়ে করেন অপূর্ব। এ সংসারে আয়াশ নামে একটি পুত্রসন্তান রয়েছে তার। ২০২০ সালে অদিতির সঙ্গেও সংসারের ইতি টানেন অপূর্ব।

Comments

comments

More Stories

১ min read
১ min read
১ min read

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!