ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২৪ ৬:৪৪ পূর্বাহ্ণ || ইউএসবাংলানিউজ২৪.কম

১৩ বছর পর ফিরেই অপূর্ব-তিশার বাজিমাত

১ min read

এক সময়ের দর্শকনন্দিত জুটি জিয়াউল ফারুক অপূর্ব ও নুসরাত ইমরোজ তিশা ফিরেছেন ১৩ বছর পর। তাদের ফেরার খবরে শোবিজমহলে বেশ হৈচৈ শুরু হয়ে যায়। দীর্ঘদিন থেকেই দর্শকরা অপেক্ষা করছিলেন এ জুটির নতুন কাজের। দর্শকদের সেই অপেক্ষার শেষ হলো। ঈদ উৎসবে প্রচারে এসেছে এ জুটির দুটি নাটক ‘রক রবীন্দ্র’ ও ‘অহং’। টেলিভিশনের পর ‘রক রবীন্দ্র’ নাটকটি ইউটিউবেও অবমুক্ত হয়েছে। ফিরেই যেন বাজিমাত করেছেন তারা। অন্তত দর্শক সাড়া এমনটাই বলছে।

সেই পুরনো জুটির নতুন কাজ ও নতুন উপস্থাপনে দর্শকরা মুগ্ধ। নাটক ও জুটির প্রশংসায় মশগুল নেটিজেনরা। দীর্ঘদিন পর এ জুটিকে দেখে দর্শকরা ভালোবাসা উগড়ে দিয়েছেন। জানাচ্ছেন, শুভকামনা। সেই সাথে মহিদুল মহিম পরিচালিত ‘রক রবীন্দ্র’ নাটকটি এরইমধ্যে দর্শক মহলে বেশ প্রশংসিত ও জনপ্রিয়তা পেয়েছে। একদিনেই ছাড়িয়েছে মিলিয়ন ভিউ।

এ জুটি ও নাটকটি সম্পর্কে জানাতে গিয়ে ভক্তমহলে বেশ আলোড়ন সৃষ্টি হয়। একজন লিখেন, দীর্ঘ ১২/১৩ বছর পর আমাদের প্রিয় জুটি অপূর্ব ও তিশার প্রত্যাবর্তনে আমরা যারপনাই অনেক বেশি খুশি। ফিরেই উপহার দিলেন খুব সুন্দর মিষ্টি রোমান্টিক কমেডি নাটক।

অন্য একজন লিখেন, মহিদুল মহিম পরিচালিত ‘রক রবীন্দ্র’ দেখে বেশ ভালো লাগলো। রবীন্দ্রসংগীতের সঙ্গে রক জমে পুরো ক্ষীর। অপূর্ব-তিশা জুটির রসায়নও চমৎকার লেগেছে। মনেই হয়নি যে ১৩ বছর পর কাজ করেছে।

আরও একজন লিখেন, সত্যি বলতে যেদিন থেকে শুনেছি তারা দুজন আবার একসাথে পর্দায় ফিরছে, সেদিন থেকেই তাদের করা সুপারহিট কাজগুলো পুনরায় দেখা শুরু করি। দীর্ঘ বিরতির পরও কোন পার্থক্য খুঁজে পেলামনা। সেই আগের কাজগুলোতে তারা যেভাবে মুগ্ধতা ছড়িয়েছে তাদের অভিনয় দক্ষতায়। রক রবীন্দ্র নাটকটিতে দেখার পরও সেই পুরনো অভিনয় দক্ষতার প্রমাণ পেলাম আরও একবার। অভিনন্দন প্রিয় জুটি, ভবিষ্যতে আরও কাজ চাই আপনাদের কাছে।

ধন্যবাদ মহিম ভাইয়া চমৎকার একটি কাজ উপহার দেওয়ার জন্য, এই জুটি নিয়ে আরও কাজ আশা করছি।

দর্শকদের এমন সাড়ায় উচ্ছ্বসিত নির্মাতা মহিদুল মহিম বলেন, অপূর্ব ভাইয়ার সঙ্গে আমার অনেক কাজ করা হলেও তিশা আপুর সঙ্গে এটাই আমার প্রথম কাজ ছিলো। আমার সব সময় চেষ্টা থাকে দর্শকদের ভাল কিছু উপহার দেবার। আলহামদুলিল্লাহ দর্শকদের খুবই ভালো সাড়া পাচ্ছি।

Comments

comments

More Stories

১ min read
১ min read
১ min read

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!