ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২৪ ৫:২৯ অপরাহ্ণ || ইউএসবাংলানিউজ২৪.কম

পদ্মা সেতুর ঝুঁকি এড়াতে সরানো হচ্ছে ফেরিঘাট

১ min read

পদ্মা সেতুর পিলারে ফেরির ধাক্কা এড়াতে বাংলাবাজার ফেরিঘাট সরানোর উদ্যোগ নিয়েছে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়। আগামী এক থেকে দেড় মাসের মধ্যে বাংলাবাজার ফেরিঘাট স্থানান্তর হবে। এর আগে বাংলাবাজার-শিমুলিয়া রুটে রো রো ফেরি চলাচল বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

কয়েক দিনের ব্যবধানে পদ্মা সেতুর পিলারে চারবার ফেরির ধাক্কার ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে শুক্রবার এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়।

তীব্র স্রোতের কারণে তৈরি ঘূর্ণিই ফেরির বারবার ধাক্কার কারণ উল্লেখ করে অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন করপোরেশনের (বিআইডব্লিউটিসি) চেয়ারম্যান সৈয়দ মো. তাজুল ইসলাম বলেন, ফেরি চলাচলের পথে পদ্মা সেতু এলাকা এড়ানোর জন্য বাংলাবাজার ঘাট স্থানান্তরের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিচ্ছে সরকার। এই ঘাটটি শরীয়তপুরের জাজিরায় মাঝিরকান্দি ঘাটে নেওয়া হবে। এতে এক থেকে দেড় মাস সময় লাগবে।

চার দিনের ব্যবধানে আজ শুক্রবার পদ্মা সেতুর ১০ নম্বর পিলারে কাকলি নামে ছোট একটি ফেরির ধাক্কা লাগে। সকাল পৌনে সাতটার দিকে মাদারীপুরের বাংলাবাজার থেকে মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়া যাওয়ার পথে এ ঘটনা ঘটে।

নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী ঘটনার পর পরই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। পরিদর্শন শেষে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘হালকা আঘাত লাগলেও আমরা এটাকে হালকাভাবে দেখছি না। চালকদের দায়িত্বে উদাসীনতার কারণগুলো খতিয়ে দেখা হচ্ছে। পরে প্রয়োজনীয় ব‍্যবস্থা নেওয়া হবে। পদ্মা সেতু পুরোপরি চালু হলে মাদারীপুরের বাংলাবাজার ঘাটের বাঁধ রক্ষায় শরীয়তপুরের জাজিরায় মাঝিরকান্দিতে ফেরিঘাট স্থানান্তরের বিষয়টি পরিকল্পনায় রয়েছে।

এর আগে, গত ২০ জুলাই প্রথম পদ্মা সেতুর ১৬ নম্বর পিলারের সঙ্গে ধাক্কা লেগে রো রো ফেরি শাহ মখদুমের তলা ছিদ্র হয়ে যায়। ২৩ জুলাই মাদারীপুরের বাংলাবাজার ঘাট থেকে ছেড়ে আসা রো রো ফেরি শাহজালাল ১৭ নম্বর পিলারে ধাক্কা দিলে তা ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এরপর গত সোমবার সন্ধ্যায় রো রো ফেরি বীরশ্রেষ্ঠ জাহাঙ্গীর ১০ নম্বর পিলারে সজোর ধাক্কা খায়। এসব ঘটনায় সেতুর পিলারের পানি লাগোয়া অংশে (পাইল ক্যাপ) পলেস্তারা উঠে গর্তের সৃষ্টি করেছে।

‘পদ্মা সেতু নিয়ে দেশে-বিদেশে ষড়যন্ত্র হচ্ছে’

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, পদ্মা সেতু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাহস ও সক্ষমতা সোনালী ফসল। পদ্মা সেতু নিয়ে অনেক ষড়যন্ত্র হয়েছে, এখনো হচ্ছে। দেশে-বিদেশে ষড়যন্ত্র হচ্ছে। সর্ষের মধ্যে ভূত আছে কিনা খুঁজে দেখতে হবে। শুক্রবার বিকেলে মুন্সিগঞ্জের লৌহজং উপজেলায় পদ্মা সেতু এলাকা পরিদর্শনে গিয়ে এসব কথা বলেন তিনি।

মন্ত্রী আরো বলেন, পদ্মা সেতুর পিলারে আগে যে ধরনের আঘাত লেগেছে, আজকেও সকালে ঘটনার পুনরাবৃত্তি হয়েছে। এটাকে নিছক কোনো দুর্ঘটনা বা চালকের অদক্ষতা বলে এড়িয়ে যাওয়া ভুল হবে। এখনে কোনো ষড়যন্ত্র আছে কিনা, অন্তর্ঘাত আছে কিনা, সেটা আজকে তদন্ত করে দেখা হবে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, পদ্মা সেতু আমাদের জাতীয় সম্পদ। জাতীর অনুভুতিতে আঘাত করা হচ্ছে। জাতীয়ভাবে মানুষ আহত হচ্ছে। কেন বারবার আঘাত করা হচ্ছে সেটা খতিয়ে দেখবো। আগামী বছর প্রধানমন্ত্রী সেতু উদ্বোধন করবেন। আজ সন্ধ্যায় এ বিষয়ে সভা হবে। সভায় এটা তুলে ধরা হবে।

Comments

comments

More Stories

১ min read
১ min read
১ min read

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!