অক্টোবর ২১, ২০২০ ৭:১০ অপরাহ্ণ || ইউএসবাংলানিউজ২৪.কম

ইউএস বাংলানিউজ করপোরেশন, নিউইয়র্ক

অগ্রসর পাঠকের বাংলা অনলাইন

বেড, মাস্ক ও ভেন্টিলেটর সংকটে যুক্তরাষ্ট্রের হাসপাতালগুলো

কোভিড-১৯ চিকিৎসায় অপিরাহার্য বেড, মাস্ক এবং ভেন্টিলেটর সংকটের মুখে যুক্তরাষ্ট্র। রোগী সামলাতে হিমশিম খাচ্ছে দেশটির হাসপাতালগুলো। চিকিৎসরা সব রোগীকে সেবা না দিতে পারার শঙ্কা কথা জানিয়েছেন। তারা বলছেন, রোগী বাছাই করে এখন তাদের সেবা দেওয়ার বিষয়টি নির্ধারণ করতে হবে।

বার্তা সংস্থা এএফপির অনলাইন প্রতিবেদনে খোদ যুক্তরাষ্ট্রেই এমন সংকটের খবর দিচ্ছে। হার্ভার্ড স্কুল অব পাবলিক হেলথের সার্জন ও সহকারী অধ্যাপক থমাস টিসাই বলেছেন, ‘আপনি দেখছেন মুদি দোকানের তাকগুলো খালি হয়ে গেছে এবং টয়লেট পেপারের অভাবের কারণে এক ধরনের চাপ তৈরি হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘যদি হাসপাতালগুলোতে চিকিৎসকদের জন্য প্রয়োজনীয় সুরক্ষাসামগ্রী এবং ভেন্টিলেটর নাই হয়ে যায় তাহলে সেই একই আতঙ্ক কেমন হবে তা একবার ভাবুন। সংকট বাড়তে থাকলে পরিস্থিতি যে কি হবে তাই ভাবছি। আগামী কয়েকদিন, কয়েক সপ্তাহ কি ঘটবে তার ওপর অনেক কিছু নির্ভর করছে।’

বিশ্বব্যাপী দেড় লক্ষাধিক মানুষকে সংক্রমিত এবং ৭ হাজারের বেশি প্রাণ কেড়ে নেওয়া নভেল নামের করোনাভাইরাস এখন বৈশ্বিক মহামারি। ভাইরাসটির সংক্রমণে সৃষ্ট কোভিড-১৯ রোগে যুক্তরাষ্ট্রে প্রায় ৫ হাজার মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। যুক্তরাষ্ট্রে ইতোমধ্যে ভাইরাসটি ৭৩ জনের প্রাণও কেড়ে নিয়েছে।

অর্থনৈতিক সহযোগিতা ও উন্নয়ন সংস্থার (ওইসিডি) দেওয়া হিসাব অনুযায়ী, বিশ্বের সর্ববৃহৎ অর্থনীতির দেশ যুক্তরাষ্ট্রের হাসপাতালগুলোতে মাত্র ১০ লাখ বেড রয়েছে। প্রতি এক হাজার নাগরিকের জন্য বরাদ্দ রয়েছে ২.৮টি বেড। কিন্তু হাজারে এই সংখ্যাটা দক্ষিণ কোরিয়ায় ১২.৩, চীনে ৪.৩ ইতালিতে ৩.২।

যুক্তরাষ্ট্রের হাসপাতালগুলোর সংগঠন আমেরিকান হাসপাতাল অ্যাসোসিয়েশনের (এএইচএ) দেওয়া সর্বশেষ হিসাব অনুযায়ী, যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে থাকা হাসপাতালগুলোর নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) এক লাখেরও কম বেড রয়েছে। যার বেশিরভাগই এখন রোগীতে পূর্ণ।

এক হিসাবে মার্কিন স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, মাঝারি ধরনের কোনো সংকট দেখা দিলে যুক্তরাষ্ট্রের আরও অন্তত ১ লাখ আইসিইউ বেড প্রয়োজন। আর সেটা যদি তীব্র হয় তাহলে সেই প্রয়োজনীয়তা গিয়ে ঠেকবে ২৯ লাখে। এদিকে করেনোয় আক্রান্ত ৫ শতাংশ রোগীকে আইসিইউতে ভর্তি করতে হচ্ছে।

আরও পড়ুন

error: Content is protected !!