এপ্রিল ১৪, ২০২৪ ১১:৩১ পূর্বাহ্ণ || ইউএসবাংলানিউজ২৪.কম

বাঙালি হলে চাকরি মিলবে না, বিজ্ঞাপনে তোলপাড়

১ min read

ব্যাপক তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে একটি চাকরির বিজ্ঞাপনকে কেন্দ্র করে। ভারতের পশ্চিবঙ্গের রাজধানী কলকাতায় চাকরির ঐ বিজ্ঞাপনে বলা হয়েছে বাঙালিদের আবেদনের প্রয়োজন নেই।

অ্যাকাউন্ট্যান্ট পদের ওই চাকরির বিজ্ঞাপনে শুধুমাত্র পুরুষ প্রার্থীদের আবেদন করতে বলা হয়েছে। শর্ত, আবেদনকারীকে অবশ্যই বি কম পাস এবং অবাঙালি হতে হবে।

চাকরিতে প্রবেশের এই বৈষম্যের প্রতিবাদে বিক্ষোভ করেছে রাজ্যের বাঙালি শিক্ষার্থীদের একটি সংগঠন। বিজ্ঞাপনে আরও বলা হয়েছে, ৪-৫ বছরের অভিজ্ঞতার পাশাপাশি প্রার্থীর বয়স বেঁধে দেয়া হয়েছে ৩৫ বছরের মধ্যে। তবে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল প্রার্থীকে অবশ্যই অবাঙালি হতে হবে।

ভারতীয় একটি গণমাধ্যম বলছে, সম্প্রতি দক্ষিণ কলকাতার রাসবিহারীর একটি বেসরকারি সংস্থার জন্য এই বিজ্ঞাপন দিয়েছে একটি কন্সালটেন্সি অ্যাজেন্সি। এজেন্সির অফিস যাদবপুরের রবীন্দ্রনগর কালীবাড়ি এলাকায়। কন্সালটেন্সির মালিক নিজেও একজন বাঙালি।

তিনি বলেন, নির্দিষ্ট অর্থের বিনিময়ে নিবন্ধন করলে, সেই প্রার্থীকে চাকরির খোঁজ দেয়ার কাজ করে তার এজেন্সির। কোনও কোম্পানি কর্মী নিয়োগ করতে চাইলে যোগাযোগ করিয়ে দেয়া হয় প্রার্থীর সঙ্গে। তার বক্তব্য, বর্তমানে এ শহরের অনেক কোম্পানি বাঙালি যুবক নিয়োগ করতে চাইছে না।

অনেকের ধারণা, বাঙালিদের ইংরেজি ভাষার উপর পর্যাপ্ত দখল নেই। তারা কাজে ফাঁকি দেয়। সেই কারণেই কর্মক্ষেত্রে অবাঙালিদের চাহিদা বাড়ছে। তবে শুধু এই অ্যাজেন্সিই নয়, শহরের একাধিক এজেন্সির বিজ্ঞাপনে পরিষ্কার ভাষায় ‘অবাঙালি’ প্রার্থীর উল্লেখ রয়েছে বলে দাবি করেছে ভারতীয় ওই গণমাধ্যম।

বাঙালি চাকরিপ্রার্থীদের অনেকেই বলছেন, আবেদন করার পর তাদের সাক্ষাৎকারের জন্য কোনো সংস্থা ডাকে না। শুধুমাত্র নাম ও পদবি দেখেই সরিয়ে রাখা হয় তাদের বায়োডেটা। ফলে এ রাজ্যে ব্যবসা করতে আসা কোম্পানিগুলোর মধ্যে যে বাঙালি বিদ্বেষ ক্রমেই বেড়ে চলেছে, সে ছবিই যেন দিনে দিনে স্পষ্ট হয়ে উঠছে। যা রাজ্যের জন্য মোটেই ভাল বিজ্ঞাপন নয়। ইতোমধ্যে এর বিরুদ্ধে সুর চড়িয়েছে বাঙালিদের একটি সংগঠন। সেই সব কোম্পানির দফতরের সামনে গিয়ে বিক্ষোভও করেছেন তারা।

Comments

comments

More Stories

১ min read
১ min read
১ min read
error: Content is protected !!