এপ্রিল ১৩, ২০২৪ ২:৪৪ পূর্বাহ্ণ || ইউএসবাংলানিউজ২৪.কম

প্রত্যাশার চেয়ে ভালো আলোচনা হয়েছে’

১ min read

উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের সঙ্গে ঐতিহাসিক বৈঠকের পর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেছেন, বৈঠক যেকারো প্রত্যাশার চেয়ে ভালো হয়েছে। কোরীয় উপদ্বীপের পারমাণবিক অচলাবস্থা নিয়ে আলোচনার পর তারা একটি চুক্তিতে স্বাক্ষর করবেন।

মঙ্গলবার সিঙ্গাপুরের সেন্তোসা দ্বীপের ক্যাপেল্লা হোটেলে বিরল এক বৈঠকে বসেন কিম-ট্রাম্প। বৈঠকে মধ্যাহ্নভোজের বিরতির সময় ক্যাপেল্লা হোটেলের গার্ডেনে গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। এসময় উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনকে ট্রাম্পের পাশে চুপ করে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায়।

তবে এর অাগে উত্তর কোরিয়ার এই নেতা ট্রাম্পের সঙ্গে তার বৈঠকের ব্যাপারে বলেন, শান্তির জন্য একটি ভালো সূচনা।

পরে এ দুই রাষ্ট্রনেতা ট্রাম্পের লিমোজিন গাড়ির দিকে এগিয়ে যান। এসময় গাড়ির পেছনের আসনের দিকে কিম কিছু একটা দেখিয়ে দিচ্ছিলেন ট্রাম্প। তারপর আবারো পায়চারী শুরু করেন তারা।

তবে চুক্তি স্বাক্ষরের ব্যাপারে বিস্তারিত তথ্য না দিলেও ট্রাম্প বলেন, ‘অনেক অগ্রগতি হয়েছে- সত্যিই খুব ইতিবাচক। আমি মনে করি, যেকারো প্রত্যাশার চেয়ে ভালো আলোচনা হয়েছে।’

গুরুত্বপূর্ণ নথিতে স্বাক্ষর

একটি গুরুত্বপূর্ণ নথিতে স্বাক্ষর করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও উত্তর কোরিয়ার নেতা। দুই দেশের রাষ্ট্রপ্রধান এই নথিতে স্বাক্ষর করলেও তাৎক্ষণিকভাবে এ ব্যাপারে বিস্তারিত কোনো দেয়া হয়নি।

তবে ট্রাম্প বলেছেন, আমরা গুরুত্বপূর্ণ একটি নথিতে স্বাক্ষর করছি। মঙ্গলবার সিঙ্গাপুরের সেন্তোসা দ্বীপের ক্যাপেল্লা হোটেলে বিরল এক বৈঠকের ওই নথিতে স্বাক্ষর করেন কিম-ট্রাম্প। এসময় ট্রাম্প বলেন, আমরা একসঙ্গে অত্যন্ত ভালো একটা সময় পার করলাম। শিগগিরই এই চুক্তির ব্যাপারে সংবাদ সম্মেলনে আলোচনা করা হবে।

ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম বিবিসি বলছে, দুই নেতা ঠিক কি বিষয়ের নথিপত্রে স্বাক্ষর করলেন তা জানা না গেলেও বলা হচ্ছে এটি ঐতিহাসিক ও সুসংহত।

অনুবাদকের মাধ্যমে কিম জং উন বলেন, আমরা অতীতকে পেছনে ফেলে আসার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। পৃথিবী গুরুত্বপূর্ণ পরিবর্তন দেখতে পাবে।

ট্রাম্প বলেছেন, তারা বেশ বিস্তারিত কাগজপত্রে স্বাক্ষর করতে যাচ্ছেন। আমরা বিশেষ সম্পর্ক তৈরি করেছি। যেকারো প্রত্যাশার চেয়ে ভালো বৈঠক হয়েছে।

কোরীয় উপদ্বীপকে পারমাণবিক নিরস্ত্রকরণের ব্যাপারে এক প্রশ্নের জবাবে মার্কিন এ প্রেসিডেন্ট বলেন, আমরা এই প্রক্রিয়া খুব শিগগিরই শুরু করতে যাচ্ছি।

সূত্র : রয়টার্স।

Comments

comments

More Stories

১ min read
১ min read
১ min read
error: Content is protected !!