আগস্ট ১৪, ২০২২ ১:৩০ পূর্বাহ্ণ || ইউএসবাংলানিউজ২৪.কম

ইউএস বাংলানিউজ, নিউইয়র্ক

অগ্রসর পাঠকের বাংলা অনলাইন

‘হলিউড যদি পারে, আমরাও পারব’

‘শুধু মুখে মুখেই বলি যে ডিজিটাল সিনেমা। কিন্তু কাজে সেটা দেখা যায় না। আমাদের কিছু সমস্যা আছে তা ঠিক। আমাদের হলগুলোতে টু-কে প্রোজেক্টর নেই, সাউন্ডের জন্য যেই আধুনিক মেশিন দরকার, সেটা নেই।

আমি বলব, আজকে হলিউড যদি পারে, আমরাও পারব। হলিউড কি পৃথিবীর বাইরের কিছু নাকি? তারাও তো আমাদের মতো মানুষ। আমাদের ইচ্ছেশক্তি দরকার।’

ঢাকাই সিনেমার নানা সংকট ও উত্তরণের পরামর্শ দিতে গিয়ে এভাবেই বলছিলেন চিত্রনায়ক ও সংসদ সদস্য আকবর হোসেন পাঠান ফারুক। গতকাল ২৭ এপ্রিল, শনিবার রাতে রাজধানীর অভিজাত হোটেল লা মেরিডিয়ানে প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ‘সিনেবাজ’র উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে কথাগুলো বলেন তিনি।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ফারুক। তিনি নিজের বক্তব্যে বলেন, ‘কিছুদিন আগে একটি সাক্ষাতকারে আমাকে বলা হলো সিনেমা হলে ভালো মেশিন নেই। তাই দর্শকরা সিনেমা দেখতে পারে না। আমি প্রতিবাদ করলাম। আমি বলেছি দর্শক অবশ্যই সিনেমা দেখে এবং দেখতে বাধ্য, যদি সিনেমাটা ভালো হয়।

সিনেমার মধ্যে যদি দর্শককে আকৃষ্ট করার মতো কিছু থাকে, তাহলে দর্শক অবশ্যই সিনেমা দেখবে।’

নতুন প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ‘সিনেবাজ’-কে শুভেচ্ছা জানিয়ে ফারুক বলেন, ‘আমার অন্তর থেকে ভালোবাসা দিলাম সিনেবাজকে। আমি সবসময় আপনাদের পাশে থাকবো। আমি মন থেকে চাই, আপনারা ভালো কিছু করেন। কোনো কারণে আমাকে দরকার হলে বলবেন। আমি সাধ্যমতো পাশে থাকার চেষ্টা করবো।’

তিনি সিনেবাজকে বঙ্গবন্ধুর জীবনী নিয়ে শর্টফিল্ম নির্মাণের পরামর্শও দেন। নায়ক ফারুক বলেন, ‘সামনে বঙ্গবন্ধুর শততম জন্মবার্ষিকী। আমি সিনেবাজকে বলব, আপনারা বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে একটা শর্টফিল্ম বানান। সেখানে যদি কোনোভাবে আমাকে প্রয়োজন পড়ে, তাহলে আমাকে অবশ্যই ডাকবেন। আমি চলে আসব।’

ফারুক শিল্পের স্বাধীনতা নিয়ে বলেন, ‘সিনেমার পৃথিবী একটাই। সমস্ত পৃথিবীর সিনেমার মানুষ একই মায়ের সন্তান। আমাদের শিল্পীদের সবচেয়ে বড় শত্রু হচ্ছে বর্ডার। এই বর্ডারের কারণেই বিভক্ত হয়ে থাকি আমরা। কিন্তু শিল্পীর কোনো দেশ নেই, জাত নেই। আমরা সবাই একটি পৃথিবীর মানুষ।’

প্রসঙ্গত, ঢাকাই সিনেমার দুঃসময়ে যাত্রা করলো প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ‘সিনেবাজ’। গতকাল প্রতিষ্ঠানটির নাম ঘোষণার পাশাপাশি জানায়, বছরে চারটি সিনেমা নির্মাণ করবে ‘সিনেবাজ’।

সিনেবাজ-এর ক্রিয়েটিভ ডিরেক্ট হিসেবে আছেন নির্মাতা ইফতেখার চৌধুরী। প্রতিষ্ঠানটির সিইও শাম ইসলাম, চেয়ারপার্সন জ্যোৎস্না ইসলাম এবং ডিরেক্টর অব কমিউনিকেশন হিসেবে আছেন অভিনেতা স্বাধীন খসরু।

প্রতিষ্ঠানটির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন, চিত্রনায়ক রোশান, নায়িকা জলি, অভিনেতা শিমুল খান, সংগীত পরিচালক আহমেদ হুমায়ূনসহ আরও অনেকে।

আরও পড়ুন

error: Content is protected !!