আগস্ট ১৬, ২০২২ ১২:৩৪ পূর্বাহ্ণ || ইউএসবাংলানিউজ২৪.কম

ইউএস বাংলানিউজ, নিউইয়র্ক

অগ্রসর পাঠকের বাংলা অনলাইন

‘আন্তর্জাতিকভাবেও পালিত হবে গণহত্যা দিবস’

বাংলাদেশের গণহত্যা দিবসকে আন্তর্জাতিক স্বীকৃতি প্রদানের কাজ শুরু হয়েছে। স্বীকৃতি পেলে ২৫ মার্চ শুধু জাতীয়ভাবে নয়, আন্তর্জাতিকভাবেও এ দিন পালিত হবে বলে জানিয়েছেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক।

সোমবার ঢাকার মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘর মিলনায়তনে ৭ম আন্তর্জাতিক মুক্তি ও মানবাধিকার বিষয়ক প্রামাণ্যচিত্র- ২০১৯ উৎসবের পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা জানান।

মোজ্জাম্মেল হক বলেন, বাঙালিদের ওপর নির্মম, নিষ্ঠুর অত্যাচার-নির্যাতন চালিয়ে মুনাফেক ও বেইমানের পরিচয় রেখেছে তৎকালীন পাকিস্তান সরকার। ধর্মের নামে তারা অন্যায় করেছে। এখনও তাদের অনুসারীরা লম্ফঝম্ফ করে চলছে। ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ দেশে গণহত্যা চালানো হয়েছে।

Mozammel.jpg

তিনি বলেন, ২৫ মার্চ বাংলাদেশের গণহত্যা দিবস বাঙালির জন্য একটি কালরাত। এটিকে আন্তর্জাতিক দিবস হিসেবে পালনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে কাজ শুরু করেছি। শিগগিরই ২৫ মার্চ গণহত্যা দিবস আন্তর্জাতিক দিবস হিসেবে পালনের স্বীকৃতি অর্জন করবে বলে জানান মন্ত্রী।

৭ম আন্তর্জাতিক মুক্তি ও মানবাধিকার বিষয়ক প্রামাণ্যচিত্র-২০১৯ উৎসবে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মোট ছয়টি চলচ্চিত্র নির্বাচন করা হয়। জুরি বোর্ডের মাধ্যমে ফুয়াদ চৌধুরী নির্মিত ‘মার্সেল মিহাম’ স্বল্পদৈর্ঘ্য প্রমাণ্যচিত্রটিকে বিজয়ী হিসেবে ঘোষণা করা হয়। বিজয়ীর হাতে এক লাখ টাকার চেক, ক্রেস্ট ও সনদ তুলে দেয়া হয়। মুক্তিযুদ্ধে বাঙালিদের ওপর চালানো গণহত্যা ও মুক্তিযুদ্ধের প্রেক্ষাপট নিয়ে নির্মিত প্রামাণ্য চিত্রটি প্রদর্শন করা হয়।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ফিল্ম আর্কাইভের মহাপরিচালক বিধান চন্দ্র কর্মকার, জুরি বোর্ডের চেয়ারপারসন অধ্যাপক কাবেরী গায়েন, নির্মাতা কর্মশালার আন্তর্জাতিক প্রশিক্ষক নীলোৎপল মজুমদার প্রমুখ।

আরও পড়ুন

error: Content is protected !!