ডিসেম্বর ৩, ২০২২ ৩:৩৮ অপরাহ্ণ || ইউএসবাংলানিউজ২৪.কম

ইউএস বাংলানিউজ, নিউইয়র্ক

অগ্রসর পাঠকের বাংলা অনলাইন

বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজ নিয়ন্ত্রণে আইন আসছে

বাংলাদেশের মানহীন বেসরকারি মেডিক্যাল  কলেজ বন্ধ নিয়ে অসহায়ত্ব প্রকাশ করেছ স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেন, বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজ নিয়ন্ত্রণের জন্য আমি পদক্ষেপ নিয়েছিলাম। অনেক নামি কলেজে শিক্ষক নেই। লাইব্রেরি নেই। এসব কলেজ আমি বন্ধ করে দিয়েছিলাম। কিন্তু দুর্ভাগ্য উচ্চ আদালতের নির্দেশ নিয়ে সেগুলো আবার ফিরে এসেছে।

বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে ২০১৮-১৯ সালের বাজেটে প্রস্তাবিত দায়মুক্ত ব্যয় ব্যতিত অন্যান্য ব্যয় সম্পর্কিত মঞ্জুরি দাবির ওপর ছাঁটাই প্রস্তাবের জবাবে এ কথা বলেন তিনি।

এর আগে ছাঁটাই প্রস্তাবের ওপর আলোচনায় অংশ নিয়ে একাধিক সংসদ সদস্য মানহীন সেবরকারি বিশ্ববিদ্যালয় নিয়ে সমালোচনা করেন। গ্রামে ডাক্তার পাওয়া যায় না বলেও তারা জানান।

জবাবে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘কোর্ট যদি হস্তক্ষেপ করেন তাহলে আমি কী করব বলেন? আমি নিজে বলেছি অনেক বেসকারি কলেজ ঢাকায় আছে, দেশে আছে, মানহীন এবং শিক্ষক নেই। লাইব্রেরি নেই, ল্যাবরেটরি নেই। এসব কলেজ আমি বন্ধ করে দিয়েছিলাম। কিন্তু উচ্চ আদালতের হস্তক্ষেপের কারণে তাদের ছেড়ে দিতে হয়েছে। কি করব বলেন? কোর্টের নির্দেশ তো আমি অমান্য করতে পারব না।

তিনি সংসদ সদস্যদের উদ্দেশ্য করে বলেন, আপনারা যদি সোচ্চার থাকেন, আমি বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজ নিয়ন্ত্রণের জন্য আইন করতে যাচ্ছি। এটা বাস্তবায়ন হলে কোনো মানহীন বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজ থাকবে না।

তিনি দাবি করেন, গত তিন বছর মেডিক্যাল ভর্তি নিয়ে কোনো প্রশ্ন ওঠেনি। আমি অভিজ্ঞ ডাক্তারদের নিয়ে এই ভর্তির ব্যবস্থা করেছি।

গ্রামে-গঞ্জে ডাক্তার নিয়োগে দীর্ঘসূত্রিতার কারণে এমপিদের ক্ষোভের পরিপ্রেক্ষিতে তিনি বলেন, এই সরকার যদি আবার ক্ষমতায় আসে তাহলে ডাক্তারের অভাব হবে না।

মন্ত্রী বলেন, গ্রামে পোস্টিং থাকা সত্ত্বেও যারা সেখানে ডিউটি না করে ঢাকায় বসে বেতন নিয়েছেন তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আরও পড়ুন

error: Content is protected !!