ফেব্রুয়ারি ২৯, ২০২৪ ৫:০৯ অপরাহ্ণ || ইউএসবাংলানিউজ২৪.কম

বাইডেনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে চান না রাইসি

১ min read

ইরানের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে চান না। জয়ের পর সোমবার তেহরানে নিজের প্রথম সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ইরানের ব্যালিস্টিক মিসাইল কর্মসূচি ও আঞ্চলিক মিলিশিয়াদের বিষয়েও বাইডেনের সাথে আলোচনায় রাজি নন তিনি।

রাইসি বলেন, ১৩তম প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের মাধ্যেমে দেশের মানুষের আশার প্রতিফলন হয়েছে। ইরানের শীর্ষ নেতা আয়াতুল্লাহ আলি খামেনির ডাকে সাড়া দেওয়ায় সবাইকে ধন্যবাদ জানান নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট। তাকে নেতা হিসেবে নির্বাচিত করায় ইরানের জনগণকে ধন্যবাদ জানান রাইসি। একই সঙ্গে নির্বাচনের আগে জনগণকে দেয়া প্রতিশ্রুতিগুলো বাস্তবায়নেরও আশ্বাস দেন তিনি।

ইব্রাহিম রাইসি বলেন, চলমান করোনা মহামারির মধ্যে ভোটকেন্দ্রে মানুষের আন্তরিক উপস্থিতি ইরানের মানুষের ঐক্য ও সংহতির প্রতীক। এছাড়া ইরান থেকে বৈষম্য, দারিদ্র্য ও দুর্নীতি দূর করার অঙ্গিকার করেন নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি।

২০১৮ সালে ইরানের ডেথ কমিশনে রাইসির ভূমিকার বিষয় উঠে আসে সংবাদ সম্মেলনে। ডেথ কমিশন জোরপূর্বক ভিন্নমতাবলম্বী বহু রাজনীতিকের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করেছিল। যেখানে দায়ীত্বপ্রাপ্ত ছিলেন ইব্রাহিম রাইসি। এ প্রসঙ্গে আল জাজিরার সাংবাদিক আসাদ বেগের প্রশ্নের জবাবে রাইসি বলেন, মানবাধিকারের সবগুলো দিক বিবেচনা করেই সিদ্ধান্তগুলো নিয়েছিলেন তিনি।

২০১৫ সালের ১৪ জুলাই ভিয়েনায় স্বাক্ষরিত হওয়া ইরানের পারবাণবিক কর্মসূচি সীমিত রাখার বিষয়টি নিয়েও কথা বলেন রাইসি। তিনি বলেন চুক্তির শর্তগুলো মানা হবে, তবে যুক্তরাষ্ট্রকে আগে ইরানের ওপর থেকে অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করতে হবে।

জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের পাঁচ সদস্য চীন, ফ্রান্স, রাশিয়া, যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র ও জার্মানি ২০১৫ সালে ইরানের সঙ্গে চুক্তি করে। চুক্তিতে আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের বিনিময়ে পারমাণবিক কর্মসূচি সীমিত রাখার প্রতিশ্রুতি দেয় ইরান। কিন্তু ২০১৮ সালে সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্রকে সরিয়ে নেন এবং ইরানের ওপর নিষেধাজ্ঞা বহাল রাখেন। পাল্টা পদক্ষেপ হিসেবে ইরানও পারমাণবিক চুক্তির শর্ত লঙ্ঘন করে ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধ করা শুরু করে।

Comments

comments

More Stories

১ min read
১ min read
১ min read

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!