ফেব্রুয়ারি ২৪, ২০২৪ ৫:৪৯ অপরাহ্ণ || ইউএসবাংলানিউজ২৪.কম

ভয়াবহ আগুনে পুড়লো ইন্দোনেশিয়ায় তেল শোধনাগার

১ min read

ইন্দোনেশিয়ার রাষ্ট্রায়ত্ত তেল শোধন কোম্পানি পার্তামিনার একটি কারখানায় ব্যাপক অগ্নিকাণ্ডে পাঁচ জন আহত হয়েছেন। খারাপ আবহাওয়ার কারণে রোববার দিবাগত রাতে আগুন লাগে পার্তেমিনার কারখানায়। আহতদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। রয়টার্স

দেশটির সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, রোববার দিবাগত রাতে ইন্দোনেশিয়ার পশ্চিম জাভা প্রদেশের বালোনগান এলাকায় পার্তামিনার তেল শোধনাগার কারখানায় আগুন লাগে। কোম্পানির পক্ষ থেকে দেওয়া এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘আগুনের প্রকৃত কারণ এখনো জানা যায়নি, তবে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে খারাপ আবহাওয়ার কারণে এই দুর্ঘটনা ঘটেছে। যখন আগুনের সূচনা হয়, সেসময় বালোনগান ও তার আশপাশের এলাকায় মুষলধারে বৃষ্টি ও বজ্রপাত হচ্ছিল।’

পার্তামিনার মুখপাত্র ইফকি সুকারিয়া বার্তাসংস্থা রয়টার্সকে জানিয়েছেন, কারখানায় একটি বড় বিস্ফোরণের পর আগুনের সূত্রপাত হয়। বিস্ফোরণের সময় যারা কারখানার আশপাশে ছিলেন, তাদের মধ্যে ৫ জন আহত হয়েছেন। আহতদের ইতোমধ্যে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এছাড়া ওই কারাখানা সংলগ্ন এলাকায় বসবাসকারী প্রায় সাড়ে নয়শ অধিবাসীকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন ইফকি সুকারিয়া।

ইন্দোনেশিয়ার রাজধানী জাকর্তা থেকে বালোনগানের তেল শোধনাগার কারখানাটির দূরত্ব ২২৫ কিলোমিটার। সোমবার পর্যন্ত আগুন নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হয়নি। টেলিভিশন ফুটেজে দেখা গেছে, কারখানাভবন থেকে বিশাল ধোঁয়ার কুন্ডলি ওপরের দিকে উঠছে।

কারখানার সংলগ্ন এলাকায় বাসিন্দা সুসি ইন্দোনেশিয়ার টেলিভিশন চ্যানেল মেট্রো টিভিকে বলেন, ‘মাঝরাতে পেট্রোল পোড়ার তীব্র গন্ধে জেগে উঠেছিলাম। কোত্থেকে এই গন্ধ আসছে বোঝার চেষ্টা করছি, এমন সময় কারখানা এলাকা থেকে বিস্ফোরণের শব্দ এলো। জানালা দিয়ে বাইরে তাকিয়ে দেখি অগ্নিকাণ্ড শুরু হয়েছে সেখানে।’ ইন্দোনেশিয়ার রাষ্ট্রায়ত্ত এই তেল শোধনাগার কোম্পানি দৈনিক ১ লাখ ২৫ হাজার ব্যারেল জ্বালানি তেল পরিশোধন করে। তবে এই দুর্ঘটনার পর থেকে স্বাভাবিকভাবেই বন্ধ আছে বালোনগানের ওই কারখানাটি।

ইফকি সুকারিয়া বলেন, ‘আগুন এখনো পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আসেনি। দমকল কর্মীরা চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। আগুন নিয়ন্ত্রণে আসার পর ক্ষয়ক্ষতির হিসাব, কারখানার সংস্কার ও কবে নাগাদ উৎপাদন শুরু হবে সে বিষয়ক সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’

Comments

comments

More Stories

১ min read
১ min read
১ min read

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!