মে ২৬, ২০২৪ ৯:৫৭ অপরাহ্ণ || ইউএসবাংলানিউজ২৪.কম

৩০৬ ইলেকটোরাল ভোট পেয়ে নির্বাচিত হবো: ট্রাম্প

১ min read

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে অন্তত ৩০৬টি ইলেকটোরাল ভোট পেয়ে নির্বাচিত হওয়ার ভবিষ্যদ্বাণী করেছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট ও রিপাবলিকান দলীয় প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প। নির্বাচনের দিন মঙ্গলবার সকালে মার্কিন সংবাদমাধ্যম ফক্স নিউজকে দেয়া এক বিশেষ স্বাক্ষাৎকারে তিনি এই আশা প্রকাশ করেন।

ট্রাম্প বলেন, তিনি ৩০৬টি ইলেকটোরাল কলেজ ভোট পেয়ে জয়ী হবেন। ট্রাম্পের এই ভবিষ্যদ্বাণী যদি সত্যি হয়, তাহলে তা হবে গতবারের নির্বাচনে পাওয়া ইলেকটোরাল কলেজ ভোটের চেয়ে বেশি। দেশটিতে মোট ৫৩৮টি ইলেকটোরাল কলেজ ভোট রয়েছে। ইলেকটোরাল কলেজ প্রতিনিধিরাই মূলত হোয়াইট হাউসে কে যাবেন সেটি নির্ধারণ করেন।

স্বাক্ষাৎকারে মার্কিন এই প্রেসিডেন্ট ডেমোক্র্যাট মনোনীত ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসের তীব্র সমালোচনা করেন। তিনি বলেন, কমলা হ্যারিস যদি ভাইস প্রেসিডেন্ট হন, তাহলে সেটি মার্কিন জনগণ এবং নারীদের জন্য ভয়ঙ্কর হবে।

ফক্স নিউজের ফক্স অ্যান্ড ফ্রেন্ড অনুষ্ঠানে ট্রাম্প বলেন, আমি মোট ৩০৬টি ইলেকটোরাল কলেজ ভোট পাবো। ২২৩ থেকে ৩০৬ এটা অনেক বড় সংখ্যা।

তিনি বলেন, আমি মনে করি— আমরা এই সংখ্যাও টপকে যাবো। আমি এটা ছাড়িয়ে যাবো। আমি মনে করি, আমরা এটা ছাড়াতে পারবো। আরও ভালো করবো। আমরা যেসব কাজ করেছি; জনগণ সেগুলোর প্রশংসা করছে।

গত বছরের নির্বাচনে রিপাবলিকান দলীয় ডোনাল্ড ট্রাম্প ডেমোক্র্যাট মনোনীত প্রার্থী হিলারি ক্লিনটনকে হারিয়ে ব্যাপক চমক দেখিয়েছিলেন। ২০১৬ সালের নির্বাচনে ৩০৬টি ইলেকটোরাল কলেজ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন ট্রাম্প।

যদিও পরবর্তীতে দু’জন প্রার্থী তাদের ভোট ট্রাম্পকে দিতে অস্বীকৃতি জানানোয় সেই সংখ্যা ৩০৪ এ দাঁড়ায়। তারপরও ৩০ লাখের বেশি ভোট পেয়েও ট্রাম্পের কাছে হেরে যান হিলারি।

৭৪ বছর বয়সী ডোনাল্ড ট্রাম্প করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর কিছুদিন আগে সুস্থ হয়ে উঠে দেশজুড়ে চষে বেড়িয়েছেন। অনেকেই তার স্বাস্থ্যের অবস্থা ভালো নয় বলে মন্তব্য করলেও গত ৪৮ ঘণ্টায় অন্তত সাতটি রাজ্যে দশটি নির্বাচনী সমাবেশ করেছেন তিনি।

এদিকে, প্রেসিডেন্ট নির্বাচনী ফল ঘিরে সহিংসতার আশঙ্কায় দেশটির বিভিন্ন রাজ্যে অনেক দোকান-পাট, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এখন থেকেই ব্যবস্থা নিতে শুরু করেছে। সম্ভাব্য সহিংসতা এবং হামলা থেকে বাঁচতে পিজবোর্ড দিয়ে দোকানের সামনের অংশ ঢেকে দিচ্ছেন মালিকরা।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি বলছে, সহিংসতার আশঙ্কায় বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যের বড় বড় ব্যবসা বন্ধ রাখা হয়েছে। এর মধ্যে আছে স্যাকস, ফিফথ এভিনিউ, নোরডস্ট্রম এবং ফার্মেসি চেইন সিভিএসের মতো প্রতিষ্ঠান।

গত সপ্তাহে ওয়ালমার্ট জানিয়েছিল, তারা স্টোরে সাময়িকভাবে আগ্নেয়াস্ত্র এবং গুলি, খোলা জায়গায় প্রদর্শন বন্ধ রাখছে। কারণ তারা ‘গণ অসন্তোষের’ আশঙ্কা করছে। তবে একদিন পর তারা সেই সিদ্ধান্ত বদল করে।

প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প দ্বিতীয় মেয়াদে আরও চার বছর ক্ষমতায় থাকার জন্য মরিয়া হয়ে উঠলেও ডেমোক্র্যাট দলীয় প্রার্থী জো বাইডেন দেশটিতে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে মার্কিনিদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

১৯৭০ সালের ভিয়েতনাম যুদ্ধের পর যেকোনও সময়ের তুলনায় এবার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনে ব্যাপক বিভাজন এবং ক্রোধ দেখা যাচ্ছে। উত্তেজনা উসকে দিয়ে ডোনাল্ড ট্রাম্প নির্বাচনী ফলাফল বিতর্কিত করতে পারেন বলেও অনেকে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন।

নির্বাচনের আগে পর্যন্ত সব জনমত জরিপে ৭৭ বছর বয়সী জো বাইডেনই এগিয়ে রয়েছেন। তিনি বলেছেন, আমেরিকার আত্মার পুনরুদ্ধার দরকার। ২ লাখ ৩১ হাজারের বেশি মানুষের প্রাণ কেড়ে নেয়া করোনাভাইরাস মহামারি সামলাতে নতুন নেতৃত্ব প্রয়োজন বলেও মন্তব্য করেছেন বাইডেন।

Comments

comments

More Stories

১ min read
১ min read
১ min read

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!