আগস্ট ৫, ২০২১ ৩:১০ অপরাহ্ণ || ইউএসবাংলানিউজ২৪.কম

ইউএস বাংলানিউজ করপোরেশন, নিউইয়র্ক

অগ্রসর পাঠকের বাংলা অনলাইন

চট্টগ্রামে ভারত ফেরত ৪ জনের করোনা

চট্টগ্রামে ভারত ফেরত ৪ জনের করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। তবে তাদের দেহে ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট (ধরন) আছে কিনা তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তাদের মধ্যে ৩ জন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে ও আরেকজন সাতকানিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

হাসপাতাল সূত্র জানায়, ভারত থেকে ১৫ মে পর্যন্ত চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে আসেন ৪২ জন। এর মধ্যে ১৭ জন রোগী ও বাকিরা রোগীর স্বজন। তাদের মধ্যে ৪ জনের করোনা পজিটিভ আসে গত ১৩ মে। নেগেটিভ আসা বাকি ৩৮ জনকে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের মাধ্যমে কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে।

ভারত ফেরত ৪ করোনা রোগী হলেন:- খুলশী থানার রেলওয়ে কলোনির ৫০ বছ দর বয়সী জাহেদা বেগম। সাতকানিয়ার পুরানগড়ের ৩০ বছর বয়সী মিজানুর রহমান। পটিয়ার মালিয়ারারের ২৪ বছর বয়সী সুলতান আহমেদ। হালিশহর বসুন্ধরা আবাসিকের ৩২ বছর বয়সী সাজেদা আক্তার।

এ বিষয়ে চমেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল হুমায়ুন কবির বলেন, করোনা আক্রান্ত ৪ জনের কারও শরীরে ভারতীয় ভ্যরিয়েন্ট আছে কিনা নিশ্চিত হতে আরও পরীক্ষা-নিরীক্ষার প্রয়োজন আছে।

কিছুদিন আগে চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ইউনিভার্সিটি (সিভাসু) উপাচার্যের নেতৃত্বে একদল শিক্ষক চট্টগ্রামের করোনার ধরন নিয়ে পরীক্ষা করেন। এসব পরীক্ষায় যুক্তরাজ্য, দক্ষিণ আফ্রিকা ও অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে ভারতের করোনার ধরন মিলছে। কিন্তু ভারতীয় কোনো ধরন নমুনা পরীক্ষায় পাওয়া যায়নি। এ নিয়ে চট্টগ্রামবাসী একটু স্বস্তিও পেয়েছিল। তবে এবার ভারতীয় ধরন ছড়ানোর ভয় চট্টগ্রামবাসীর মধ্যে কাজ করছে।

চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ইউনিভার্সিটির (সিভাসু) গবেষকরা জানিয়েছেন, যুক্তরাজ্য ও আফ্রিকান ভ্যারিয়েন্ট বা বৈশিষ্ট্যের করোনাভাইরাস এখন চট্টগ্রামে ঘুরছে। সীমিত আকারে মিলেছে অস্ট্রেলিয়া-আইসল্যান্ড-সুইজারল্যান্ড অঞ্চলভিত্তিক করোনার ধরনও।

নতুন বৈশিষ্ট্যের করোনার উপস্থিতি পাওয়া গেছে যাদের শরীরে, তারা চট্টগ্রামের মেহেদিবাগ, জামালখান, রহমতগঞ্জ, শুলকবহর, মুরাদপুর, কাজির দেউড়ি, বন্দর, কুঞ্জছায়া আবাসিক এলাকা এবং চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ছাত্রী হোস্টেলের বাসিন্দা।

গবেষণায় করোনাভাইরাসের যুক্তরাজ্য ভ্যারিয়েন্টের (B.1.1.7) উপস্থিতি পাওয়া গেছে চট্টগ্রামের মেহেদিবাগের ৩২ বছর বয়সী এক পুরুষ, জামালখান এলাকার ৬৪ বছর বয়সী এক পুরুষ, রহমতগঞ্জ এলাকার ৬৩ বছর বয়সী এক পুরুষ, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ছাত্রী হোস্টেলের ২৪ বছর বয়সী এক তরুণী, শুলকবহর এলাকার ৩২ বছর বয়সী এক পুরুষ এবং মুরাদপুরের ৬০ বছর বয়সী এক পুরুষের শরীরে।

অন্যদিকে আফ্রিকান ভ্যারিয়েন্টের (B.1.351) উপস্থিতি মিলেছে- জামালখান এলাকার ২২ বছর বয়সী এক তরুণ, বন্দর এলাকার ৬৫ বছর বয়সী এক পুরুষ এবং কাজির দেউড়ি এলাকার ৩২ বছর বয়সী এক পুরুষের মধ্যে। এছাড়া অস্ট্রেলিয়া-আইসল্যান্ড-সুইজারল্যান্ড অঞ্চলভিত্তিক করোনার ধরনে মিল পাওয়া গেছে চট্টগ্রামের কুঞ্জছায়া আবাসিক এলাকার ৩১ বছর বয়সী এক পুরুষের শরীরে।

আরও পড়ুন

error: Content is protected !!