JavaScript must be enabled in order for you to see "WP Copy Data Protect" effect. However, it seems JavaScript is either disabled or not supported by your browser. To see full result of "WP Copy Data Protector", enable JavaScript by changing your browser options, then try again.
‘জনকের কথা কবিতা ও গান’ যুক্তরাষ্ট্রে একটি সফল আয়োজন

‘জনকের কথা কবিতা ও গান’ যুক্তরাষ্ট্রে একটি সফল আয়োজন

গত ২৯ ডিসেম্বর নিউইয়র্কস্থ জ্যাকসন হাইটসের জুইস সেন্টারে হয়ে গেল মুজিব বর্ষ উদযাপন পরিষদ-যুক্তরাষ্ট্রের আয়োজনে “জনকের কথা কবিতা ও গান”। জাতির জনকের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপনের লক্ষ্যে মুজিব বর্ষ উদযাপন পরিষদের ধারাবাহিক কর্মসূচীর অংশ হিসেবে আয়োজিত অনুষ্ঠানটি ছিল অত্যন্ত পরিচ্ছন্ন, গোছানো যা উপস্থিত দর্শকদের মন কেড়েছে।

অনুষ্ঠানের সদস্য সচিব আবু সাঈদ রতনের প্রারম্ভিক বক্তব্য, মহান মুক্তিযুদ্ধের শহীদদের প্রতি সম্মান প্রদর্শনের জন্য এক মিনিট নিরবতা পালনের মধ্যদিয়ে অনুষ্ঠানের শুরু হয়।

ডাঃ ফেরদৌস খন্দকারের পরিকল্পনায় “কানেক্ট বাংলাদেশ” শিরোনামে একটি মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক ভিডিও চিত্র প্রদর্শন করা হয় এবং এই বিষয়ে বক্তব্য রাখেন ডাঃ ফেরদৌস খন্দকার। এরপর বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ প্রেক্ষিত বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা পর্বে অংশ নেন মুক্তিযোদ্ধা তাজুল ইমাম, অধ্যাপিকা হুসনে আরা বেগম, সাপ্তাহিক বাঙালী সম্পাদক কৌশিক আহমেদ এবং রাজনীতিবিদ জাকারিয়া চৌধুরী।

আলোচনা অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন ছড়াকার মঞ্জুর কাদের। এ প্রজন্মের শিশুদের আবৃত্তি অনুষ্ঠানে অংশ নেন মুন জেবিন হাই, ফাসির কাব্য, সাফওয়ান নাহিন। এরপর জনপ্রিয় আবৃত্তিশিল্পী মুমু আনসারীর পরিচালনা ও পরিবেশনায় “আমার বিজয় আমার অহংকার”-এ ৪জন শিশুশিল্পী আবৃত্তিতে অংশ নেন। তারা হলেন-নুহা কাওসার, নাহরিন ইসলাম, লিওনা মুহিত, লাম্মিম মুহিত।

এছাড়া আবৃত্তি পর্বে অংশ নেন গোপন সাহা, সাবিনা নিরু, শুক্লা রায়, তাহরিনা প্রীতি, শিবলী সাদিক, মাহফুজ হায়দার ও রোসনা শাম্স ললি। স্বরচিত কবিতা পাঠে অংশ নেন শাহিন ইবনে দিলওয়ার, কবি হোসাইন কবির, কবি জিন্নাহ চৌধুরী, পলি শাহীনা, ছন্দা বিন্তে সুলতান, তামান্না আহমেদ শান্তি প্রমূখ।

অনুষ্ঠানে আসার জন্য ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বক্তব্য রাখেন মুজিব বর্ষ উদযাপন পরিষদের আহবায়ক কবি মিশুক সেলিম। বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে স্মৃতিচারণমূলক আলোচনায় অংশ নেন প্রবীন সাংবাদিক সৈয়দ মোহাম্মদ উল্লাহ এবং সংগীত পরিবেশন করেন প্রবাসের প্রিয়মূখ তাহমিনা শহীদ ও পাপী মনা।

জাতীয় সংগীতের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি হয় এবং সমাপনী ও ধন্যবাদ বক্তব্য রাখেন ছড়াকার ও যুগ্ম আহবায়ক খালেদ সরফুদ্দীন। সম্পূর্ণ অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন কমিউনিটির প্রিয়মূখ সাহিত্য একাডেমির পরিচালক মোশাররফ হোসেন। তাঁর নান্দনিক উপস্থাপনায় ও দর্শক উপস্থিতি অনুষ্ঠানের মান অনেক বাড়িয়ে তোলে।

বৃষ্টিমূখর দিনেও প্রচুর দর্শক এর উপস্থিতি লক্ষ্য করা যায়। অনুষ্ঠানের আয়োজনে নেপথ্যে কাজ করেছেন শামস্ চৌধুরী রুশো, রিমি রুম্মান, ফারজিন রাকিবা, সাদেক শিবলী প্রমূখ। অনুষ্ঠানের আহবায়ক জি এইচ আরজু অসুস্থতার কারণে উপস্থিত থাকতে পারেননি, তবে অনুুষ্ঠান সফল হওয়ার পেছনে তাঁর অবদান অনেক।

Comments

comments

error: Content is protected !!