গৃহবন্দী গর্ভবতী কোয়েল মল্লিক

গৃহবন্দী গর্ভবতী কোয়েল মল্লিক

কলকাতার জনপ্রিয় নায়িকা কোয়েল মল্লিকের মা হওয়ার খবর প্রকাশ্যে আসার পর থেকেই শুভেচ্ছা ও ভালবাসায় ভেসে যাচ্ছেন তিনি। করোনাভাইরাসের প্রকোপে চারদিকে যখন আতঙ্ক ছড়াচ্ছে তখন কোয়েল আছেন গৃহবন্দী হয়ে। এই সময়টা একজন নারীর জন্য চ্যালেঞ্জের। প্রয়োজন অনেক আলো বাতাস, আনন্দ উৎসব। সেখানে কোয়েলের বেলায় সব বৈরী। কেমন।কাটছে তার দিন? তা জানলে অনুপ্রেরণা পাবেন গর্ভবতীরা।

কোয়েল বললেন, ‘বাড়িতে থাকতে আমি এমনিতেই ভালবাসি। যখন শুট থাকে না, তখন বালিগঞ্জের এ বাড়িতে থাকি। নয়তো মা-বাবার সঙ্গে দেখা করতে চলে যাই। এখন অবশ্য পরিস্থিতির কারণে যেতে পারছি না। তাই কিছুটা মিস করছি তো বটেই। সময় কাটানোর জন্য বই পড়া, ওয়েব সিরিজ়, সিনেমা দেখা তো চলছেই।’

কোয়েল মল্লিক শারীরিক অবস্থা নিয়ে বলেন, ‘ফিটনেসের সঙ্গে একটু হলেও কম্প্রোমাইজ় করতে হচ্ছে। এখন যেহেতু জিমে যাওয়া কিংবা কমপ্লেক্সের নীচে লনে হাঁটা সবই বন্ধ, তাই যোগব্যায়াম আর মেডিটেশনের মধ্যেই সীমাবদ্ধ।’

অভিনেত্রী কোয়েলের খাওয়া নিয়ে অনেক বাছ বিচার থাকলেও মা কোয়েলের এখন অবশ্য সেটা আর নেই। তবে খাওয়াদাওয়া করছেন চুটিয়ে। প্রচুর চকলেট, কেক, ব্রাউনি খাচ্ছেন।

এ সবের মাঝেও এই যে ঘরবন্দি থাকা, এতে কোথাও একাকিত্ব বা একঘেয়েমি কি চেপে বসে না? করোনাভীতি কি গ্রাস করেনি তাকে?

একটু থেমে বললেন, ‘যে কোনো পরিস্থিতিতেই একটা পজ়িটিভ দিক খুঁজে বার করতে চেষ্টা করি। এই সময়টায় আমরা পরিবারের সঙ্গে কোয়ালিটি টাইম কাটানোর যে সুযোগটা পাচ্ছি, সেটা সহজে মেলে না। আমার সবচেয়ে বেশি চিন্তা, যারা দিন আনে দিন খায় তাদের নিয়ে, আর বয়স্ক মানুষদের নিয়ে। আমরা যেমন শ্বশুরমশাই ও শাশুড়িমাকে বাড়ি থেকে একদম বেরোতে দিচ্ছি না

ক’দিন আগে বাবাও মল্লিকবাড়িতে যাওয়ার কথা বলেছিল। আমি সঙ্গে সঙ্গে বারণ করে দিয়েছি। আমার বর রানেও ওর অফিসের সবাইকে ওয়ার্ক ফ্রম হোম করতে বলেছে। বাড়িতেও যারা কাজে আসেন, সকলকে ছুটি দিয়েছি। কোনো ঝুঁকি নিতে চাই না।’

Comments

comments

error: Content is protected !!