JavaScript must be enabled in order for you to see "WP Copy Data Protect" effect. However, it seems JavaScript is either disabled or not supported by your browser. To see full result of "WP Copy Data Protector", enable JavaScript by changing your browser options, then try again.
বাংলাদেশকে বিশ্বমানের গড়তে ভয়ঙ্কর সব সমরাস্ত্র কিনছে

বাংলাদেশকে বিশ্বমানের গড়তে ভয়ঙ্কর সব সমরাস্ত্র কিনছে

বিডিমর্নিং ডেস্ক- 

সরকার দেশকে বিশ্বমানের তুলে ধরতে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীকে আরও আধুনিক করে গড়তে চায় । বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর হাতে আসছে রাশিয়ার কাছ থেকে ফাইটার ট্রেনিং জেট, হেলিকপ্টার ও ট্যাঙ্ক বিধ্বংসী মিসাইল।
২০১৩ সালে সামরিক সরঞ্জাম ক্রয়ে রাশিয়ার সঙ্গে বিলিয়ন ডলারের একটি চুক্তি সম্পাদন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেই চুক্তি মোতাবেক সেনাবাহিনীর হাতে আসছে অত্যাধুনিক এই সামরিক সরঞ্জামবগুলি।
বাংলাদেশ রাশিয়া হতে দুটি কিলো ক্লাস সাবমেরিন ক্রয় করেছে এবং কিছুদিন আগে হওয়া সমরাস্ত্র প্রদর্শনীতে সামরিক বাহিনীর একজন উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা নিশ্চিত করেছেন যে বাংলাদেশ দুটি "মডিফায়েড" কিলো ক্লাস সাবমেরিন ক্রয় করেছে যা ২০১৯ সালের মধ্যে আমাদের নৌবাহিনীতে যুক্ত হবে।
অন্যদিকে, বাংলাদেশ নৌবাহিনীতে যুক্ত হয়েছে দুটি অত্যাধুনিক সাবমেরিন। শুধু তাই নয়, একটি নতুন বিমানঘাঁটি তৈরি করা হচ্ছে। চালু হয়েছে নতুন ক্যান্টনমেন্ট।
দেশের নৌবহরে যুক্ত হয়েছে আরও নতুন ৩টি যুদ্ধজাহাজ। এ বছরই নৌবহরে প্রথমবারের মতো আসছে দুটি অত্যাধুনিক সাবমেরিন।
বাংলাদেশকে বিশ্বমানের গড়তে ভয়ঙ্কর সব সমরাস্ত্র কিনছে
এ ছাড়া সরকারের নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় হাতে নেওয়া হয়েছে যুদ্ধজাহাজ নির্মাণ কার্যক্রম। নৌবাহিনীকে আরও আধুনিকায়নের লক্ষ্যে চীনে নতুন দুটি করভেট নির্মাণের কার্যক্রম শুরু হয়েছে। ভৌগোলিক অবস্থানগত ও কৌশলগত কারণে বাংলাদেশের জলসীমা ও তার সম্পদ রক্ষায় নৌবাহিনীকে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে হবে। নতুন ৩টি যুদ্ধজাহাজ কমিশনিংয়ের মাধ্যমে বাংলাদেশ নৌবাহিনী আরও একধাপ এগিয়ে গেল। চলতি বছর নৌবাহিনী পায় গৌরবময় স্বাধীনতা পদক।
বাংলাদেশকে বিশ্বমানের গড়তে ভয়ঙ্কর সব সমরাস্ত্র কিনছে
উল্লেখ্য বাংলাদেশ রাশিয়া থেকে দুটি কিলো ক্লাস সাবমেরিন ক্রয় করেছে এবং কিছুদিন আগে হওয়া সমরাস্ত্র প্রদর্শনীতে সামরিক বাহিনীর একজন উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা নিশ্চিত করেছেন যে বাংলাদেশ দুটি “মডিফায়েড” কিলো ক্লাস সাবমেরিন ক্রয় করেছে যা ২০১৯ সালের মধ্যে আমাদের নৌবাহিনীতে যুক্ত হবে।
বাংলাদেশের আধিকারিকরা বলছেন, এই সাবমেরিনগুলোর মাধ্যমে সমুদ্রের এক লাখ ১১ হাজার ৬৩১ বর্গকিলোমিটার এলাকায় বাংলাদেশের সার্বভৌমত্ব সুরক্ষিত হবে।
বাংলাদেশকে বিশ্বমানের গড়তে ভয়ঙ্কর সব সমরাস্ত্র কিনছে
এটা বাংলাদেশের মোট ভূখণ্ডের চেয়ে সামান্য কম। অন্যদিকে, নৌবাহিনীর আধুনিকায়ন ও বঙ্গোপসাগরে আরও কার্যকর ভূমিকা রাখতে দুটি সাবমেরিন কেনার পরিকল্পনার কথা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

Comments

comments

error: Content is protected !!